৫ স্বর্ণের দিনে বাংলাদেশের ইতিহাস

দক্ষিণ এশিয়ান গেমসে (এসএ গেমস) আরেকটি স্বর্ণভরা দিন কাটল বাংলাদেশ। ৫ স্বর্ণের দিনে রচিত হলো গেমস ইতিহাসে নিজেদের সেরা সাফল্যের গল্প। নবম দিন শেষে বাংলাদেশের অর্জন ১৯টি স্বর্ণ। এক আসরে যা বাংলাদেশের সেরা সাফল্য।

সোমবার নেপালের কাঠমান্ডু ও পোখারায় চলমান ১৩তম এসএ গেমসের নবম দিনে ৫ স্বর্ণের চারটিই বাংলাদেশ পায় আর্চারি থেকে। আগের দিন দিনের ছয় স্বর্ণের সব কটি নিজেদের করেছিল বাংলাদেশের আর্চাররা। এদিন ব্যক্তিগত ইভেন্টের চারটি স্বর্ণই জিতে নিয়েছেন রোমান সানা, ইতি খাতুন, সোহেল রানা, সুমা বিশ্বাসরা।

তাতে আসরে আর্চারির ১০ স্বর্ণের সব কটি নিজেদের করেছে বাংলাদেশ। এরপর পুরুষ ক্রিকেট ইভেন্টেও স্বর্ণ জিতে নেয় সৌম্য সরকার, নাজমুল হোসেন শান্তরা। সৌম্য-শান্তদের স্বর্ণটি এবারের আসরের ১৯তম স্বর্ণ। যা বাংলাদেশকে নিয়ে গেছে নতুন উচ্চতায়।

এর আগে ২০১০ সালে নিজেদের মাটিতে আয়োজিত আসরে সর্বাধিক ১৮ স্বর্ণ জিতেছিল বাংলাদেশ। আর বিদেশের মাটিতে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ সাফল্য ছিল ১৯৯৫ মাদ্রাজ সাফ গেমসে। সেবার এসেছিল ৭টি স্বর্ণ। যা আগের দিনই ছাড়িয়ে গিয়েছিল বাংলাদেশ।

এদিন ৫ স্বর্ণ ছাড়াও ৩ রুপা ও ১২ ব্রোঞ্জে দিন পার করেছে বাংলাদেশ। নবম দিন শেষে সব মিলে বাংলাদেশের অর্জন ১৯ স্বর্ণ, ৩৪ রুপা ও ৮০ ব্রোঞ্জসহ ১৩৩ পদক।

এক নজরে দেখে নেওয়া যাক দিনের সব খেলার ফল

আর্চারি

পুরুষ রিকার্ভ এককের ফাইনালে ভুটানের কিনলে তিসেরাংকে ৭-১ সেট পয়েন্টে হারিয়ে স্বর্ণ পদক জিতেছেন রোমান সানা। পুরুষ কম্পাউন্ড এককের ফাইনালে ১৩৭-১৩৬ স্কোরে ভুটানের প্রতিযোগীকে হারিয়ে স্বর্ণ পদক জিতে নেন সোহেল রানা।

মেয়েদের রিকার্ভ এককের ফাইনালে ভুটানের দেমা সোনমকে ৭-৩ পয়েন্টে হারান ইতি খাতুন। কম্পাউন্ড এককের ফাইনালে শ্রীলঙ্কার প্রতিযোগীকে ১৪২-১৩৪ স্কোরে হারিয়ে স্বর্ণ পদক জিতেন সুমা বিশ্বাস।

ছেলেদের কম্পাউন্ডের এককে সোহেলের স্বর্ণের সঙ্গে ব্রোঞ্জ পেয়েছেন অসীম কুমার দাস।

ক্রিকেট

ছেলেদের ফাইনালে শ্রীলঙ্কাকে ১১ বল হাতে রেখে ৭ উইকেটে হারিয়ে স্বর্ণ পদক জিতেছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২৩ দল। টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে ১২২ রানে অলআউট হয় শ্রীলঙ্কা। ৩ উইকেট হারিয়ে ১৮.১ ওভারে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ।

শুটিং

১০ মিটার এয়ার রাইফেল মিশ্র দলগত ইভেন্টে বাংলাদেশের শাকিল আহমেদ এবং আরদিনা ফেরদৌস আঁখি ব্রোঞ্জ পদক পেয়েছেন।

ফেন্সিং

ছেলেদের ফয়েল দলগত ইভেন্টে রুপা জিতেছেন বাংলাদেশের রেজাউল করিম, রুবেল মিয়া এবং সাদ্দাম হোসেন রাকিব মিয়া।

মেয়েদের সাবরে দলগত ইভেন্টে বাংলাদেশের ফাতেমা মুজিব, চাদনী আক্তার, ফারজানা আক্তার এবং নাজিয়া খাতুন ব্রোঞ্জ পদক পেয়েছেন।

মেয়েদের ইপি দলগত ইভেন্টে বাংলাদেশের মঞ্জিলা আক্তার, আসমা আক্তার, কামরুন্নাহার এবং নাজমা খাতুন ব্রোঞ্জ পেয়েছেন।

কুস্তি

মেয়েদের ৬৮ কেজি ওজন শ্রেণিতে তিথি রায় এবং ছেলেদের ৭৪ কেজি ওজন শ্রেণিতে শেখ শিপন ব্রোঞ্জ পদক পেয়েছেন।

বক্সিং

৫৬ কেজি ওজন শ্রেণিতে রুপা জিতেছেন রবিন মিয়া। ফাইনালে তিনি ২০-১৮ পয়েন্টে হেরে যান ভারতের বক্সার শচীনের কাছে। সব মিলিয়ে বক্সিংয়ে ১টি রুপা ও ৬টি ব্রোঞ্জ জিতল বাংলাদেশ।

সাঁতার

পুরুষ ৪*১০০ মিটার মিডলে রিলেতে রুপা জিতেছে বাংলাদেশ। জুয়েল আহমেদ, আরিফুল ইসলাম, নুরুন্নবী নাহিদ ও আসিফ রেজা বাংলাদেশ দলের হয়ে খেলেন।

Comments

comments