এমপির পিতা কুখ্যাত রাজাকার, নাম নেই তালিকায়!

সরকারের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় প্রকাশিত রাজাকারদের তালিকায় বরগুনার পাথরঘাটার একাধিক মুক্তিযোদ্ধার এসেছে। অপরদিকে বাদ পড়েছে এলাকার কুখ্যাত সব রাজাকারের নাম।

এ নিয়ে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বরগুনার পাথরঘাটার মুক্তিযোদ্ধারা।

প্রবীণ মুক্তিযোদ্ধারা বলেন, বর্তমান আওয়ামী লীগ এমপির বাবা খলিলুর রহমান তৎকালীন বরগুনা মহাকুমার রাজাকারদের কমান্ডার ছিলেন। তার নেতৃত্বে এ অঞ্চলে অসংখ্য বাড়ি-ঘর জ্বালিয়ে হত্যা লুন্ঠন চালিয়েছে সহযোগীরা।

মুক্তিযোদ্ধা মনি মণ্ডল বলেন, খলিুলর রহমানের নেতৃত্বে আমার বাড়িতে হামলা চালিয়ে অগ্নি সংযোগ ও লুণ্ঠন চালানো হয়।

তিনি জানান, কাকচিড়ার কনক হত্যাকাণ্ডসহ বরগুনার বিভিন্ন এলাকায় এই বাহিনী হত্যাযজ্ঞ লুণ্ঠন চালিয়েছে। অথচ, অজ্ঞাত কারণে খলিলুর রহমানের নাম তালিকায় নেই।

শহীদ মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান মিয়ার ছেলে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রিপন বলেন, রাজাকারদের অনেকে খোদ সরকারে ঘাঁপটি মেরে থাকায় এ অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। এ অঞ্চলের কুখ্যাত রাজাকার ছিলেন বর্তমান এমপির বাবা খলিলুর রহমান।

এছাড়াও আহের উদ্দীন তালুকদার, আজিজ মাস্টারসহ অনেকেরই নাম নেই এই তালিকায়।

এদিকে এই ঘটনার পর থেকে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা চরম অস্বস্তিতে। উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাবির হোসেন জানিয়েছেন, খলিুরর রহমান একজন কুখ্যাত রাজাকার ছিলেন। এ নিয়ে আমরা চরম বিব্রত। তালিকায় কেন তার নাম নেই, অথচ রয়েছে মুক্তিযোদ্ধাদের নাম, এ নিয়ে আমরা প্রশ্নের সম্মুখীন।

উল্লেখ্য সদ্য প্রকাশিত রাজাকারের তালিকা নিয়ে সারাদেশে তোলপাড় সৃষ্টি হয়ে গেছে। দেখা গেছে, প্রকাশিত তালিকার ১০ হাজার ৭৮৯ জন রাজাকারের মধ্যে আওয়ামী লীগের আছে-৮০৬০, বিএনপির ১০২৪ এবং অন্যান্য দলের ৮৭৯ ও জামায়াতের ৩৭ জন।

Comments

comments