‘যুক্তরাষ্ট্রের জন্য কঠোর প্রতিশোধ অপেক্ষা করছে’

যেসব অপরাধী তাদের নোংরা হাত দিয়ে গত রাতে জেনারেল সোলেইমানির রক্ত ঝরিয়েছে, তাদের জন্য কঠোর প্রতিশোধ অপেক্ষা করছে বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনি আজ শুক্রবার কুদস ব্রিগেডের কমান্ডার জেনারেল কাসেম সোলেইমানির মৃত্যুর এক শোকবার্তায় এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন। ইরানের এই সর্বোচ্চ নেতা দেশটিতে তিন দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করেন। ইরানি সংবাদমাধ্যম পার্স টুডে ও ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডের অনলাইন সংস্করণ এ খবর জানিয়েছে।

আয়াতুল্লাহ আলি খামেনি বলেন, বিশ্বের কুচক্রী ও শয়তানি শক্তিগুলোর বিরুদ্ধে বহু বছর ধরে একনিষ্ঠ ও বীরোচিত লড়াই চালিয়ে গেছেন জেনারেল সোলায়মানি। তিনি দীর্ঘদিন ধরে শাহাদাতের অমীয় সুধা পান করার যে আকাঙ্ক্ষা পোষণ করতেন, শেষ পর্যন্ত সেই উচ্চ মর্যাদায় তিনি অধিষ্ঠিত হয়েছেন। তবে তাঁর রক্ত ঝরেছে মানবতার সবচেয়ে বড় শত্রু ও সবচেয়ে জালিম শাসক যুক্তরাষ্ট্রের হাতে।

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আরো বলেন, ‘বিগত বছরগুলোতে জেনারেল সোলেইমানি যে অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন, তার পুরস্কার হিসেবে তিনি শহীদ হয়েছেন। তাঁর চলে যাওয়ায় তাঁর রেখে যাওয়া পথ বন্ধ হবে না। সকল বন্ধু ও শত্রুর জেনে রাখা উচিত, দ্বিগুণ উৎসাহে প্রতিরোধ আন্দোলন এগিয়ে যাবে এবং এই আন্দোলনের বিজয় অনিবার্য।’

ইরাকের বাগদাদ বিমানবন্দরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উপর্যুপরি রকেট হামলায় আজ শুক্রবার ইরানি রেভল্যুশনারি গার্ডসের অভিজাত কুদস ফোর্সের প্রধান জেনারেল কাসেম সোলেইমানিসহ অন্তত আটজনের প্রাণহানি হয়েছে। ইরাকের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন জেনারেল সোলেইমানির নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্দেশে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনী এ হামলা চালিয়েছে। জেনারেল সোলেইমানিকে হত্যা করে আত্মরক্ষামূলক পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে পেন্টাগনের ওই বিবৃতিতে বলা হয়।

আজ শুক্রবার ভোরে উপর্যুপরি তিনটি রকেট হামলা হয়। এতে ইরাকি আধাসামরিক বাহিনীর পাঁচজন এবং দুজন বিদেশি রয়েছেন বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে। হামলায় দুটি গাড়ি ধ্বংস হয়ে গেছে।

হামলার পরপর মার্কিন প্রশাসনের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, বাগদাদ বিমানবন্দরে রকেট হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র্রের বাহিনী। ইরানি জেনারেল সোলেইমানিকে হত্যা করা হয়েছে।

ইরানের রেভল্যুশনারি গার্ড জানায়, যুক্তরাষ্ট্রের হেলিকপ্টার হামলায় জেনারেল সোলেইমানি নিহত হয়েছেন। তারা অবশ্য হামলায় ইরাকি মিলিশিয়া নেতা আবু মাহদি আল-মুহান্দিসও নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে।

বাগদাদে মার্কিন দূতাবাসে হামলা ও মার্কিন সেনাদের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষের কয়েক দিনের মাথায় এ হামলার ঘটনা ঘটল। সিরিয়া ও ইরাকে মার্কিন বিমান হামলায় ২৫ হিজবুল্লাহ যোদ্ধা নিহতের পর তাদের জানাজায় অংশ নিয়ে বাগদাদে মার্কিন দূতাবাসে হামলা চালায় বিক্ষুব্ধ ইরাকিরা।

গতকাল বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষামন্ত্রী মার্ক এসপার ওই সংঘর্ষ ও হামলার ঘটনায় ইরানকে দায়ী করে বলেন, এ অঞ্চলে মার্কিন সেনা ও কর্মকর্তাদের ওপর হামলা কোনোভাবেই বরদাশত করা হবে না।

Comments

comments