ছাগল ছিনতাই: সেই মোহাম্মদপুর থানা ছাত্রলীগ সভাপতি গ্রেফতার

গত কোরবানির ঈদের আগে রাজধানীর মোহাম্মদপুরে ছাগল ছিনতাইয়ের অভিযোগে করা মামলায় ওই থানা ছাত্রলীগের সভাপতি মুজাহিদ আজমী তান্নাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার (৬ জানুয়ারি) তান্নাকে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মোহাম্মদপুর থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল লতিফ।

তিনি বলেন, ‘মোহাম্মদপুর থানা ছাত্রলীগের সভাপতি মুজাহিদ আজমী তান্নাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে মোহাম্মদপুর থানায় একটি মামলায় ওয়ারেন্ট ছিলো।’

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ২০১৯ সালের গত ১১ আগস্ট কোরবানির ঈদের আগে ট্রাকে একদল ব্যবসায়ী যশোরের বারোবাজার পশুরহাট ও ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ থেকে ২১২টি ছোটবড় বিভিন্ন রং এর ছাগল নিয়ে ঢাকায় আসেন। চাঁদার দাবিতে অভিযুক্তরা ট্রাকটি মোহাম্মদপুরের বাবর রোডের জহুরি মহল্লা এলাকায় আটকে রাখেন। তারা ছাগলগুলো নামান ও একটি ক্লাব ঘরে ছাগল ব্যবসায়ী সাইফুল ইসলাম, বাবু খান, শেখ সোলেমান, মো. নুরুজ্জামান, ফারুক বিশ্বাস, মোহাম্মদ মাসুদ মণ্ডলকে আটকে রাখেন।

এ সময় র‍্যাব-২ এর একটি টহল দল নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে অনুমোদনহীন পশুর হাট তদারকি ও ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করছিল। খবর পেয়ে দলটি ঘটনাস্থলে যায় ও জিম্মিদশা থেকে ব্যবসায়ীদের উদ্ধার করে। ভুক্তভোগী ব্যবসায়ীরা তিন ছিনতাইকারীকে শনাক্ত করেন। তারা হলেন- ইয়াসির আরাফাত, জাহিদুল ইসলাম ও মো. রায়হান।

জিজ্ঞাসাবাদে তারা বলেন, এ ঘটনায় তাদের সহযোগী ছিলেন মুজাহিদ আজমীর তান্নাসহ আরও পাঁচজন। অভিযুক্তরা লাইসেন্স ছাড়া অবৈধভাবে ওয়াকিটকি ব্যবহার করছিলেন এবং নিজেদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য বলে পরিচয় দিয়ে আসছিলেন।

ব্যবসায়ীদের উদ্ধারের পর সেসময় র‍্যাব-২-এর কমান্ডিং অফিসার পুলিশ সুপার মহিউদ্দিন ফারুকী বলেন, ১১ আগস্ট অর্থাৎ ঈদের আগের দিন দুপুর ১২টার সময় ব্যবসায়ীরা প্রথমে আমাদের ফোনে খবর দেন। খবর দিয়ে ব্যবসায়ীরা অভিযোগ করেন, বাবর রোডে ২১২টি ছাগল ছিনতাই করে করে ট্রাকসহ আটকে রাখা হয়েছে। ওই সময় মোহাম্মদপুর এলাকায় র‍্যাবের একটি মোবাইল টিম কাজ করছিলেন। পরে মোবাইল টিমসহ আমরা ঘটনাস্থলে একটি ক্লাব ঘরের ভেতরে ছাগল ব্যবসায়ীদের আটক অবস্থায় পাই। সেখানে তিনজন ছিনতাইকারী উপস্থিত ছিলেন। পাশে একটি মাচা করা ট্রাকের ওপর-নিচে মিলে মোট ২১২টি ছাগল ছিল। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্দেশে আমরা ব্যবসায়ীদের ও ছিনতাইকারীদের মোহাম্মদপুর থানায় সোপর্দ করি।

এর আগে তান্নাকে ছাগল ছিনতাইচেষ্টার অভিযোগে করা মামলায় চার সপ্তাহের আগাম জামিন দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। তিনি আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন জানালে হাইকোর্টের বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি এস এম কুদ্দুস জামান সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

গত ১১ আগস্ট মুজাহিদ আজমী তান্নাসহ নয়জনের বিরুদ্ধে মোহাম্মদপুর থানায় একটি মামলা করেন র‍্যাব-২ এর সিনিয়র ওয়ারেন্ট অফিসার মো. ফারুখ হোসেন।

২০১৮ সালে গরু ছিনতাইয়ের অভিযোগ উঠেছিল ছাত্রলীগ নেতা মুজাহিদ আজমী তান্নার বিরুদ্ধে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, নিজেদের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য হিসেবে পরিচয় দিয়ে কোরবানির জন্য আনা ছাগল ছিনতাই করেন মোহাম্মদপুর থানা ছাত্রলীগের সভাপতি মুজাহিদ আজমী তান্না এবং সাধারণ সম্পাদক নাইমুল ইসলামের সহযোগীরা। তারা সারা বছর ছাত্ররাজনীতি করেন। কিন্তু ঈদুল আজহার আগে আগে শুরু করেন ছাগল ছিনতাই। সেই ছাগলগুলো নিয়ে অবৈধ হাট বসিয়ে রমরমা ব্যবসা করেন।

ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী ও স্থানীয়রা জানান, কোরবানির ঈদের আগে ওই দুই ছাত্রলীগ নেতা নিজেদের অনুসারীদের মোহাম্মদপুরের বেড়িবাঁধ ও আসাদগেট এলাকায় দাঁড় করিয়ে দেন। এলাকার ভেতরের বিভিন্ন সড়কেও অবস্থান নেন কেউ কেউ। এসব পথ দিয়ে কোনো বিক্রেতা ছাগল নিয়ে সিটি করপোরেশন নির্ধারিত হাটে যাওয়ার সময় তাদের জোর করে নিজেদের অবৈধ হাটে নিয়ে আসেন। নিজেরা ছাগল ছিনিয়ে নেন। আবার বিক্রেতাদের ওই হাটেই ছাগল বিক্রিতে বাধ্য করেন। বিক্রির দামের ওপর হাজারে ৫০ টাকা করে চাঁদা আদায় করেন।

Comments

comments