আইআইইউসিতে শিক্ষককে ক্লাস রুম বন্ধ করে হেনস্থা করলো ছাত্রলীগ

চট্টগ্রাম আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং (ত্রিপলি) বিভাগের প্রধানকে ক্লাস রুমে দরজা বন্ধ করে হেনস্থা করেছে ছাত্রলীগ।

জানা যায়, স্কলারশিপ সংক্রান্ত বিষয়ে অন্যায় সুপারিশ ও ভর্তি পরীক্ষায় কোটাভিত্তিক ভর্তি ও বিশ্ববিদ্যালয়ে বকেয়া টাকা পরিশোধ না করে সার্টিফিকেট উঠানোর জন্য অন্যায়ভাবে সুপারিশ চাইলে বিভাগীয় প্রধান সেই সকল বিষয়ে সুপারিশ করতে অস্বীকৃতি জানায়। এরপর ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা অকথ্য ভাষায় গালাগালাজসহ ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ করে গলাধাক্কা দিয়ে মেঝেতে ফেলে দেয় ঐ শিক্ষককে।

এছাড়া ছাত্রলীগের জিয়া উদ্দিন বাবলু, জুবায়ের ডলার, উচো মারমা, হাসান হাবীব মুরাদসহ কয়েকজন নেতা কর্মীরা সাধারণ ছাত্রদের ক্লাস থেকে বের করে দেয়। পরে দরজা বন্ধ করে ঐ বিভাগীয় প্রধানকে মারধর করে। এসময় চেয়ারম্যান পদে কিভাবে থাকেন দেখে নেবে বলে হুমকি দেয় ছাত্রলীগ নেতারা। এছাড়া তার পরিবারকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেয় তারা।

এ ঘটনার পরে শিক্ষকগণ জরুরি ভিত্তিতে ভিসি স্যারের সাথে মিটিং করেছেন এবং অবিলম্বে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি না দিলে পরবর্তী একাডেমিক কার্যক্রম বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন। ভিসি স্যারও বিষয়টি গুরুত্বের সাথে নিয়েছেন এবং উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করে দ্রুত তদন্তে বিচারের আশ্বাস দিয়েছেন।

উল্লেখ্য, এর আগে গত বছরের ৯ই মে ছাত্রলীগের মানববন্ধনে উপস্থিত না হওয়ায় আবাসিক হলের ইইই ডিপার্টমেন্টের ছাত্র নোমান হোসাইন নামে এক শিক্ষর্থীর মাথা ফাটিয়ে দেয় ছাত্রলীগ। এরপর একই বছরের গত ৮ মে শিক্ষকদের লাঞ্চিত করা, অনৈতিকভাবে পরীক্ষার পাশ করে নেয়ার জন্য শিক্ষকদের হুমকী ধামকী দেয়া ও ডিপার্টমেন্ট ভাংচুরের ঘটনায় নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন ডিপার্টমেন্টের শিক্ষকবৃন্দ। তারই প্রেক্ষিতে তারা শনিবার ডিপার্টমেন্টের একাডেমিক কমিটির মিটিংয়ে নিরাপত্তা নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত ক্লাস পরীক্ষা অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছেন।

এ বিষয়ে ডিপার্টমেন্ট ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে বেশ আতংক ও শিক্ষাজীবনের অনিশ্চয়তা বিরাজ করছে। তারা মনে করেন একটা প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে এমন আধিপত্য বিস্তারের রাজনীতি শিক্ষার্থীদের জীবনকে হুমকীর মুখে ফেলবে।

আরও পড়ুন: ছাত্রলীগের অনৈতিক দাবী না মানায় শিক্ষকরুম ভাংচুর, শিক্ষকদের ক্লাস বর্জন

Comments

comments