‘ফুল একদিনের, কোরআন শরীফ প্রতিদিনের’

সবাই যখন প্রিয় মানুষের হাতে মাত্র পাঁচ টাকার ফুল তুলে দিয়ে ভালোবাসা দিবস উদযাপনে ব্যস্ত সময় পার করছে তখন ফুল একদিনের, কোরআন শরীফ প্রতিদিনের এমন শ্লোগানকে সামনে রেখে কথিত ভালোবাসা দিবসে ব্যতিক্রম ধর্মী আয়োজন করেছে একটি সামাজিক সংগঠন।

শুক্রবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) সকালের দিকে বিভিন্ন মাদরাসার শিক্ষার্থী ও বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার শতাধিক মানুষের হাতে কোরআন শরীফ ও হাদিসের বই তুলে দিয়েছে খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গার একটি ব্যাতিক্রমী সামাজিক সংগঠন বন্ধু জুনিয়র যুব ক্লাবের তরুন সদস্যরা।

মাটিরাঙ্গা উপজেলা সদরের ব্যস্ত সড়কের পাশে ছোট্ট প্যান্ডেলে ভালোবাসা দিবসের এ ব্যাতিক্রমী আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন মাটিরাঙ্গা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. শামসুদ্দিন ভুইয়া, তবলছড়ি গ্রীণ হিল কলেজের প্রভাষক মো. হাফিজুর রহমান, মাটিরাঙ্গা পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোহাম্মদ আলী ও বন্ধু জুনিয়র যুব ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি মো. মামুনুর রশীদ মামুন প্রমুখ।

এমন আয়োজনকে ব্যাতিক্রমী চিন্তার ফসল উল্লেখ করে মাটিরাঙ্গা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. শামসুদ্দিন ভুইয়া বলেন, আমরা অনেকেই যা চিন্তা করিনি তরুনরা সে চিন্তার বাস্তবায়ন ঘটিয়েছে। তিনি বলেন, দিন শেষেই ফুল শুকিয়ে যাবে, সেই সাথে হারিয়ে যাবে ভালোবাসাও। কিন্তু কোরআন শরীফের আলো পরিবার থেকে শুরু করে সমাজকে আলোকিত করবে।

বন্ধু জুনিয়র যুব ক্লাব বরাবরই চমক সৃষ্টি করেছে মন্তব্য করে তবলছড়ি গ্রীণ হিল কলেজের প্রভাষক মো. হাফিজুর রহমান বলেন, ভালোবাসা দিবসে কোরআন শরীফ বিতরণ তাদের নতুন চমক। এমন আয়োজন আমাদেরকে ভালোবাসা দিবস মানেই ফুল এ চিন্তা থেকে বের হওয়ার পথ দেখাবে।

বন্ধু জুনিয়র যুব ক্লাবের এমন আয়োজনের প্রশংসা করে মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাশ বলেন, এ সংগঠনের প্রতিটি কর্মর্সূচীই নান্দনিক। ভালবাসা দিবসে পথচারীদের হাতে কোরআন শরীফ ও হাদিসের বই তুলে দেয়ার মধ্য দিয়ে তারা প্রকৃত ভালোবাসার আলো ছড়িয়ে দিল। যে ভালোবাসার আলো কখনো নিভে যাবেনা। যে আলো অনেককেই আলোকিত করবে।

Comments

comments