আইনমন্ত্রী ও দুদক চেয়ারম্যানের পদত্যাগের দাবি

পিরোজপুরের জেলা ও দায়রা জজকে তাৎক্ষণিক প্রত্যাহার করায় অবিলম্বে আইনমন্ত্রী ও দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চেয়ারম্যানের পদত্যাগ দাবি করেছেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি।

আজ বুধবার সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির মিলনায়তনে আইনজীবী সমিতির ব্যানারে এক সংবাদ সম্মেলনে সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উদ্দিন খোকন এ দাবি জানান।

খোকন বলেন, জেলা ও দায়রা জজ বদলি করণে সুপ্রীম কোর্টের কোনো তোয়াক্কা করা হয়নি। শুধুমাত্র আওয়ামী লীগ নেতা ও সাবেক এমপি’র জামিন না মঞ্জুর করার কারণে পিরোজপুরের জেলা ও দায়রা জজকে আইন মন্ত্রণালয়ের আদেশের মাধ্যমে প্রত্যাহার করা হয়েছে। উক্ত জামিন কেলেঙ্কারি দেশের সাধারণ জনগণের বিচার বিভাগের ওপর আস্থা নষ্ট করেছে এবং বিচার বিভাগের ভাবমূর্তি চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।

বারের সম্পাদক বলেন, এই পরিস্থিতিতে দেশবাসী মনে করছে সরকারের নির্দেশে যে কোনো ব্যক্তির জামিন হতে পারে বা সরকার চাইলে আদালতের মাধ্যমে বাতিল করতে পারে। জামিন কেলেঙ্কারির এই ঘটনার জন্য আইনমন্ত্রী জনাব আনিসুল হক এবং দুর্নীতি দমন কমিশনের চেয়ারম্যান জনাব ইকবাল মাহমুদের অবিলম্বে পদত্যাগের দাবি জানাচ্ছি।

আইন সচিব, যুগ্ম সচিব ও জামিন প্রদানকারী বিচারককে দায়িত্ব থেকে সাময়িক অব্যাহতি দিয়ে তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা দায়েরের দাবি জানাচ্ছি। তাছাড়াও জামিন কেলেঙ্কারির ঘটনাটি হাইকোর্টের একজন বিচারপতির অধীনে সুষ্ঠু তদন্তের দাবি জানাচ্ছি।

তিনি আরো বলেন, বিচার বিভাগের ওপর এমন নগ্ন হস্তক্ষেপের কারণে স্বভাবিকভাবে প্রশ্ন উঠে যে, সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মামলায় সাজা প্রদান ও জামিন না মঞ্জুর আইন মন্ত্রণালয়ের নির্দেশেই করা হয়েছিলো কিনা?

Comments

comments