বাবরি মসজিদ নিয়ে রায় দেওয়া সেই বিচারক এবার রাজ্যসভার সদস্য

বাবরি মসজিদের জায়গায় মন্দির নির্মাণের বিতর্কিত রায় প্রদানকারী ভারতের সুপ্রিম কোর্টের সাবেক প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ দেশটির পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ রাজ্যসভার সদস্য হিসেবে শপথ নিয়েছেন।

বিতর্ক এবং বিরোধীদের প্রবল প্রতিবাদের মধ্যেই বৃহস্পতিবার তিনি শপথ নেন বলে জানায় সংবাদ প্রতিদিন।

রঞ্জন গগৈকে সদস্য করার প্রতিবাদে রাজ্যসভা থেকে ওয়াকআউট করেন কংগ্রেস ও বহুজন সমাজ পার্টির সাংসদরা। সমালোচনায় সরব হন উচ্চকক্ষের ডিএমকে, এমডিএমকে ও বাম সদস্যরা।

সোমবার রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ সাবেক প্রধান বিচারপতি গগৈকে রাজ্যসভার সদস্য মনোনীত করেন। এনিয়ে তাৎক্ষণিক দেশটির রাজনৈতিক মহলে বিতর্কের ঝড় ওঠে।

অবসরের আগমুহূর্তে অযোধ্যার বাবরি মসজিদের জমিতে রাম মন্দির নির্মাণের নির্দেশ সম্বলিত বিতর্কিত রায় দেন প্রধান বিচারপতি গগৈর নেতৃত্বাধীন পাঁচ সদস্যের বেঞ্চ।

গগৈর অবসর নেওয়ার পরই তার রাজনীতিতে আসা নিয়ে জল্পনা শুরু হয়। তবে এনিয়ে জোর বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। গগৈয়ের মনোনয়ন নিয়ে প্রশ্ন ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তারই এককালের সহকর্মী মদন লোকুর।

বিরোধীদের অভিযোগ, বিচারপতি থাকাকালীন সরকারকে সুবিধা পাইয়ে দিয়েছেন গগৈ। আর এখন তারই পুরস্কার পাচ্ছেন তিনি।

মদন লোকুর সরাসরি সেকথা না বললেও, তার ইঙ্গিতও তেমনই। সাবেক এই বিচারপতির মতে, এতে ভারতের নিরপেক্ষ শেষ প্রতিষ্ঠানটির প্রতি মানুষ আস্থা হারাবে।

মনোনয়নের পরদিন মঙ্গলবার গুয়াহাটিতে কামাখ্যা মন্দিরে পূজা দিতে গগৈ বলেছেন, শপথগ্রহণের পর সব অভিযোগের জবাব দেবেন তিনি। এই প্রস্তাব কেন তিনি গ্রহণ করলেন সে কথাও খোলসা করে বলবেন।

Comments

comments