বাংলাদেশের টাকায় গরিবদের খাওয়াচ্ছে মোদি

প্রণঘাতী করোনায় থমকে গেছে পুরো বিশ্ব। এ পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ২২ হাজারের অধিক। আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় পাঁচ লাখ। ধীরে ধীরে ছড়িয়ে পড়ছে প্রতিটি রাষ্ট্রে। ইতিমধ্যে ভারত ও বাংলঅদেশেও ছড়িয়ে পড়েছে এই ভাইরাস। ভারতে এ পর্যন্ত ৭১৬ জন আক্রান্ত হয়েছে। মৃত্যু হয়েছে ১৪ জন। এরপরেই লকডাউন করে দেয় পুরো ভারত।

করোনায় লকডাউনের সময়ে গরিবরা যাতে অভুক্ত না থাকেন সে জন্য আগামী তিন মাস ধরে ভারতে প্রতিটি গরিব পরিবার বিনা পয়সায় পাঁচ কেজি করে চাল ও এক কেজি ডাল দেবে বলে ঘোষনা দিয়েছে মোদি সরকার। মোদির এমন ঘোষনার পর বাংলাদেশের মানুষের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। অনেকেই বলছেন সার্কের নামে বাংলাদেশ থেকে টাকা নিয়ে গরিবদের খাওয়াাচ্ছে মোদি। আবার কেউ কেউ প্রশ্ন তুলেছেন, মোদি সরকার গরিবদের খাওয়াতে পারলে তার চেয়ে দ্বিগুণ বড় বাজেটের দেশ বাংলাদেশে কেন তা করা যাবে না?

বিশ্লেষকরা বলছেন, সম্প্রতি ভারতের মন রক্ষার জন্য সার্ক তহবিলে ১.৫ মিলিয়ন ডলার অনুদান দিছে সরকার। এ ছাড়া বিভিন্ন অযুহাতে শেখ হাসিনা থেকে টাকা হাতিয়ে নিয়েছে ভারত। সেই টাকা দিয়ে এখন ভারত গরিবদের বিনা মূল্যে খাওয়াচ্ছে আর শেখ হাসিনা কিছুই করতে পারছেনা। তারা বলছেন, শুধুমাত্র সুষ্ঠ বন্টন, সরকারি সদিচ্ছা ও বিত্তশালীদের অংশ গ্রহণ থাকলেই বাংলাদেশও গরিবদের তিনবেলা খাওয়াতে পারবে।

এদিকে গতকাল শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘রপ্তানিমুখী শিল্প প্রতিষ্ঠানের জন্য আমি ৫ হাজার কোটি টাকার একটি প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করছি। এ তহবিলের অর্থ দ্বারা কেবল শ্রমিক-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা পরিশোধ করা যাবে।’

শেখ হাসিনার এই বক্তব্যের কঠর সমালোচনা করেছেন বিশ্লেষকরা। তারা বলছেন, যে দেশের মন্ত্রীদের কাছে  হলমার্কের চার হাজার কোটি টাকা দূর্নীতি  বড় অঙ্কের মনে হয় না সেদেশের মানুষের জন্য এমন তহবিল অপ্রতুল। শুধু তাই নয় এই তহবিল ঘোষনা করা হয়েছে শুধুমাত্র শ্রমিক-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা পরিশোধ করার জন্য। অথচ ভারত চাইতেই সার্ককে ১.৫ মিলিয়ন ডলার টাকা দিয়ে দিল। এখন নিজের দেশের মানুষের জন্য টাকা নেই।

তারা বলছেন, মুজিববর্ষের নামে বিভিন্ন ব্যাংক গুলো থেকে যে টাকা নেওয়া হয়েছে শেখ হাসিনা চাইলে এই অর্থ দিয়ে গরিবদের মুখে খাবার তুলে দিতে পারে। এছাড়া গত কয়েক মাসে ক্যাসিনো বিরোধী অভিযানসহ বিভিন্ন অভিযানের নামে যেসব অর্থ সংরক্ষণ করেছে সে অর্থগুলো দিয়ে দেশের এই ক্রান্তিকালে জনগণের পাশে দাঁড়ানো সম্ভব।

Comments

comments