করোনা সন্দেহে রক্ত আইইডিসিআরে পৌঁছানোর আগে চিকিৎসকের মৃত্যু

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলায় আজ শুক্রবার সকালে নিলয় চন্দ্র মজুমদার (২৭) নামের এক ইন্টার্ন চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে। বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসে ওই চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে-এমন সন্দেহে তার রক্ত পরীক্ষার জন্য সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটে (আইইডিসিআর) পাঠানো হয়েছে।

বেগমগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হারুনুর রশিদ চৌধুরী বিষয়টির সত্যতা গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, উপজেলার চৌমুহনী পৌরসভার পাবলিক হল এলাকার আজিজিয়া ভবনের চতুর্থ তলায় ভাড়া থাকতেন নিলয় মজুমদার। তিনি একই ভবনের তৃতীয় তলায় ডাক্তার শরীফুল ইসলামের ডেন্টাল ক্লিনিকে ইন্টার্ন চিকিৎসক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। গত তিন থেকে চার দিন ধরে নিলয় জ্বর, সর্দি, কাশিতে ভুগছিলেন। শুক্রবার সকালে নিজ বাসাতেই তিনি হঠাৎ মারা যান।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে বিষয়টি জানার পর মৃতের শরীরে করোনাভাইরাস ছিল কি না, তা জানতে রক্ত সংগ্রহ করে ঢাকায় আইডিসিআরে পরীক্ষার জন্য পাঠায় বলেও জানান ওসি।

এ বিষয়ে নিলয়ের পরিবারের এক সদস্য জানান, চৌমুহনী পাবলিক হল এলাকায় ডাক্তার শরীফুল ইসলামের ক্লিনিকে ইন্টার্ন করছিলেন।

Comments

comments