চিকিৎসক সমাজের প্রতি ছাত্রশিবির সভাপতির খোলাচিঠি

প্রাণঘাতী করোনায় বিশ্ব আজ সংকটের মুখে পড়েছে। তার প্রভাবে বাংলাদেশও আজ ক্রান্তিকালের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। দেশের এই পরিস্থিতিতে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা রাখছে চিকিৎসকরা। সেইসব চিকিৎসকদের কাছে খোলা চিঠি পাঠিয়েছেন বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি মো. সিরাজুল ইসলাম।

সংবাদের পাঠকদের জন্য ছাত্রশিবির সভাপতির খোলা চিঠিটি হুবহু তুলেধরা হলো:

প্রিয় চিকিৎসক সমাজ,
আসসালামু আলাইকুম। নভেল করোনাভাইরাসের কারণে সারা পৃথিবীর ন্যায় বাংলাদেশেও আজ একটি সংকটপূর্ণ অবস্থা চলমান। প্রতিটি মানুষ করোনা সংক্রমণের আশঙ্কা নিয়ে বসবাস করছে। এখন পর্যন্ত এ রোগের চিকিৎসা আবিষ্কৃত না হওয়ায় সবার মাঝে পেরেশানিটা একটু বেশিই। তারপরেও কেউ আক্রান্ত হলে বা এর কোনো লক্ষণ কারো মধ্যে দেখা দিলে অনেকক্ষেত্রেই তাদেরকে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয় বা চিকিৎসকের শরণাপন্ন হতে হয়। তারা হাসপাতালে আসলে আপনাদেরকেই আনুষঙ্গিক নানাবিধ চিকিৎসা সেবা বা পরামর্শ দিতে হয়। ভাইরাসটি সংক্রমণপ্রবণ হওয়ায় এই রোগে আক্রান্ত কাউকে চিকিৎসা দিতে গিয়ে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কাও থাকে। তারপরও ঝুঁকি নিয়ে আপনারা চিকিৎসা সেবা দেওয়ার জন্য যে অক্লান্ত প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন, সেজন্য আপনাদেরকে ধন্যবাদ না জানিয়ে উপায় নেই। আমরা আপনাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি এবং আল্লাহর দরবারে আপনাদের নিরাপত্তা ও উত্তম প্রতিদানের জন্য দোয়া করছি।

একজন মানুষ যখন হঠাৎ করে অসুস্থ হয়ে পড়ে, জীবন সংকটাপন্ন হয়, তখন আমরা যে পেশার লোকই হই না কেন, খুব অনুভব করি, আজ যদি চিকিৎসক হতাম তাহলে পাশে দাঁড়াতে পারতাম। কারণ, সেই অসহায় অবস্থায় মানুষের জীবনটাই সবচেয়ে বড় ইস্যু হয়ে দাঁড়ায়। আপনাদের মহান পেশা সত্যিই সেসময় অনেক বেশি তৃপ্তিদায়ক। কোনো একদিনের ঘটনা। পাবলিক বাসে একজন যাত্রী হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে ঠিকই মনটা কাতর হলো। সহযোগিতা ও সহমর্মিতা প্রকাশের সর্বোচ্চ চেষ্টা করলাম কিন্তু তারপরের কাজটি করতে সত্যিই অপারগ ছিলাম। অনুভব (feel) করলাম, যদি কোনো ডাক্তার সেই মুহূর্তে গাড়িতে থাকতো! সে মহান মানবসেবার পেশায়ই আপনাদের বিচরণ। সত্যিই আপনারা অনেক ভাগ্যবান। মানুষের ক্রান্তিলগ্নে পাশে দাঁড়ানোর কারণে মানুষ আপনাদের জন্য যে অকৃত্রিম ভালোবাসা প্রদর্শন আর দোয়া করে থাকে, তা বিরাট বড় পাওয়া। এ পেশায় আপনাদের সকল প্রচেষ্টাকে আল্লাহ তায়ালা কবুল করে নিন।

আজকের এই সংকটপূর্ণ অবস্থায় আপনাদের অবদান রাখার বিশেষ সুযোগ রয়েছে। সেই সুযোগটি যথার্থভাবে কাজে লাগানোর জন্য প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা সরকারের দায়িত্ব। আমরা সরকারের প্রতি জোর দাবি জানাই, যেন প্রিয় চিকিৎসক সমাজের জন্য নিরাপত্তা সামগ্রীর যথাযথ জোগান দেওয়া হয়। সেই সাথে আপনাদেরকে অনুরোধ করি, সরকারের পক্ষ থেকে জোগান দিতে দেরি হলেও, জরুরি সেসব সরঞ্জামাদি দরকার হলে ব্যক্তিগত বা গ্রুপভিত্তিক ব্যবস্থাপনার মধ্য দিয়ে জোগাড় করার চেষ্টা করুন। তবুও আপনারা আল্লাহর রহমতে সুস্থ থাকুন আর সেবা দিয়ে যান অসহায় মানবসমাজকে।

অনেক অনেক দোয়া ও শ্রদ্ধা রইল। আল্লাহ তায়ালা আপনাদেরকে নিরাপত্তার সাথে চিকিৎসা সেবা চালিয়ে যাওয়ার তৌফিক দিন। আমাদের জন্য দোয়া করবেন।
আল্লাহ হাফেজ।

Comments

comments