দেশ সংকটের সন্ধিক্ষণে: স্বীকার করলেন কাদের

নভেল করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বাংলাদেশের প্রস্তুতির কথা উচ্চস্বরে বলে আসা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরও স্বীকার করলেন দেশ এখন ‘সংকটের সন্ধিক্ষণে’।

শুক্রবার দুপুরে সংসদ ভবন এলাকায় সরকারি বাসভবনে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব কথা বলেন তিনি।

বৈশ্বিক এই মহামারী নিয়ে তিনি বলেন, “করোনাভাইরাস সংকটের কারণে সারা বিশ্ব এক ভয়ঙ্কর পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে চলছে। জাতিসংঘের মতে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর পৃথিবীতে এমন ভয়াবহ সংকট কখনও সৃষ্টি হয়নি। কবে যে এই সংকটের শেষ হবে এটা এখনও কেউ সঠিকভাবে বলতে পারছেন না। এক অনিশ্চয়তার মধ্য দিয়ে সারা বিশ্ব এগিয়ে চলছে। এক ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি দেশে দেশে, সংকট আরও ঘনীভূত করছে।

“বাংলাদেশে আমরা আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এই পরিস্থিতি অত্যন্ত ধৈর্য ও সাহসিকতার সঙ্গে মোকাবেলা করে যাচ্ছি। সরকার নিষ্ঠার সঙ্গে যথাসময়ে যথা দায়িত্ব পালনে করে যাচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ অনুযায়ী প্রশাসন, সেনাবাহিনী, আমাদের জনপ্রতিনিধিগণ আমাদের পার্টির নেতা-কর্মীরা, এবং দেশের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ, সামর্থ্যবান বিত্তবান মানুষ সবাই এগিয়ে আসছেন। আমাদের স্বাস্থ্যকর্মী ডাক্তার নার্সদের ওপর আরোপিত দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করে যাচ্ছেন। কেউ দায়িত্ব পালনে কোনো প্রকার অবহেলা করছেন না। এটা অত্যন্ত আশাব্যঞ্জক দিক।”

সবাইকে সতর্ক করে সড়ক পরিবহন মন্ত্রী কাদের বলেন, “এই সংকটে যাতে জনমতকে কেউ বিভ্রান্ত করতে না পারে, মানুষ যাতে কষ্ট না পায়, সে ব্যাপারে সবাইকে সতর্ক ও সচেষ্ট থাকতে হবে। কোনো অবস্থাতেই ধৈর্যহারা হওয়া যাবে না। কারও বিভ্রান্তিতে কেউ যেন নিজেরা বিভ্রান্ত না হয়।”

এর আগে নিজেদেরকে করোনার চেয়ে বেশি শক্তিশালি দাবি করে সমালোচনায় এসেছিলেন আওয়ামী লীগের এই সাধারণ সম্পাদক। এরপর থেকে বিভিন্ন সময় সরকারের দূর্বলতা ঢাকতে করোনা নিয়ে বিভিন্ন মন্তব্য করায় তোপের মুখে পড়েন এই নেতা। করোনার ভয়াবহতায় এবার নিজেই স্বীকার করে নিতে বাধ্য হলেন তিনি।

Comments

comments