করোনার মধ্যেও বায়ু দূষণে শীর্ষে ঢাকা

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে যানবাহন চলাচল অনেক সীমিত; বন্ধ কলকারখানা। কিন্তু এসব কিছু ঢাকা শহরের বায়ুর মানে উন্নতি ঘটাতে পারেনি। বিশ্বে দূষিত বাতাসের তালিকায় শনিবার সকালে শীর্ষে উঠে আসে অতি ঘনবসতিপূর্ণ এই শহর!

এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স- একিউআই হিসেবে এদিন সকাল ৮টা ৩ মিনিটে বায়ু মানে ঢাকা শহরের স্কোর ছিল ১৫১, যা অস্বাস্থ্যকর বায়ু মানের দিক থেকে সর্বোচ্চ।

বায়ুমান ১৫১ থেকে ২০০ এর মধ্যে নেমে আসলে মানুষের স্বাস্থ্যের ওপর প্রভাব পড়তে শুরু করে। বিশেষ করে শিশু ও বৃদ্ধরা বেশি স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়তে পারেন।

এই সময়ে বায়ুমানে ১৪৪ ও ১৩৫ স্কোর নিয়ে বাংলাদেশের পরের স্থানেই ছিল যথাক্রমে চীনের সাংহাই ও কুয়েত সিটি।

একিউআই ইনডেক্স একটি শহরের প্রতিদিনকার বায়ুমান কতটুকু ভালো বা দূষিত এবং এর ফলে মানুষের স্বাস্থ্য কেমন ঝুঁকিতে পড়তে পারে তা তুলে ধরা হয়।

বাংলাদেশে একিউআই’র বায়ুমান ইনডেক্স করা হয়ে থাকে পাঁচটি দূষণকারী ওপর ভিত্তি করে- অতিক্ষুদ্র বস্তুকণা, নাইট্রোজেন ডাই অক্সাইড, কার্বন মনোঅক্সাইড, সালফার ডাই অক্সাইড ও ওজোন গ্যাস।

একিউআই সূচকে ৫০ এর নিচে স্কোর থাকার অর্থ হলো বায়ুর মান ভালো। একিউআই স্কোর ৫১ থেকে ১০০ হলে বাতাসের মান গ্রহণযোগ্য বলে ধরে নেওয়া হয়। স্কোর ১৫১ থেকে ২০০ হলে নগরবাসীর মানুষজনের স্বাস্থ্যের ওপর প্রভাব পড়তে পারে, বিশেষ করে শিশু, বৃদ্ধ ও রোগীরা স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়তে পারেন।

Comments

comments