করোনা টেস্টের লাইনে দাঁড়িয়েছিলেন, হঠাৎ মাটিতে পড়েই মৃত্যু

রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বাসিন্দা আবদুর রাজ্জাক। করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে আজ রোববার ভোরে পরীক্ষা করাতে এসেছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ)। বৃদ্ধ মানুষ তাই সঙ্গী দুই ছেলে। তবে সিরিয়াল না পেয়ে বাসায় ফেরার পথে শাহবাগ মোড়ে হঠাৎ মাটিতে পড়েই মৃত্যু তার।

এভাবেই ঘটনাটির বর্ণনা নিজের ফেসবুকে লিখেছেন সাংবাদিক সজল মাহমুদ। ঘটনার সময় তিনি সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

ফেসবুকে তিনি আরও লিখেছেন, বৈশাখের তপ্ত রোদ নির্লজ্জভাবে আলিঙ্গন করেছে সেই বাবার মরদেহ।

মারা যাওয়া ব্যক্তির বড় ছেলে জানান, ওই বৃদ্ধ স্ট্রোক করেছেন। আর ছোট ছেলে ইমনের দাবি, মাস ছয়েক ধরে ফুঁসফুঁসের জটিলতায় ভুগছিলেন তার বাবা। কয়েকদিন ধরে জ্বর। তাই এসেছিলেন করোনার টেস্ট করাতে। রাস্তায় পড়ে যখন ধড়ফড় করছেন, তখন বাবাকে বাঁচাতে ছুটে গিয়েছিলেন পাশেই থাকা বারডেমের জরুরি বিভাগে। সেখানে পাত্তা পাননি তিনি। লাশ ঢাকতে একটা কাপড় চেয়েও মেলেনি। অথচ পেশাগত জীবনে রাজ্জাক ছিলেন কাপড় ব্যবসায়ী।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে রমনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুল ইসলাম সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘মারা যাওয়া ওই বৃদ্ধ করোনা টেস্ট করতে লাইনে দাঁড়িয়েছিলেন। হঠাৎ বুকে ব্যাথা উঠে সেখানেই মারা যায় তিনি।’

ওসি আরও বলেন, ‘ঘটনাস্থলে তার দুই ছেলেও উপস্থিত ছিল। পরে আমরা তার ছেলেদের সহায়তায় লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছি।’

Comments

comments