কোনো ভ্যাকসিন করোনাকে মারতে পারবে না, বিশেষজ্ঞের সতর্কতা

করোনা প্রতিরোধে দ্রুত ভ্যাকসিন আনতে উঠে পড়ে লেগেছে যুক্তরাষ্ট্রসহ অনেকগুলো দেশ। এরমধ্যে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অধীনে ৭০টিরও বেশি ভ্যাকসিন প্রজেক্ট কাজ করছে।

তবে সংস্থাটির একজন বিশেষজ্ঞ সতর্ক করে দিয়েছেন যে, করোনা মোকাবিলায় কার্যকর কোনো ভ্যাকসিন নাও আসতে পারে।

সিএনএনকে এক সাক্ষাৎকারে ডা. ডেভিড নাবারো নামে এই বিশেষজ্ঞ বলেন, অনেক ভাইরাস আছে যার প্রতিরোধে এখন পর্যন্ত কোনো ভ্যাকসিন আবিষ্কৃত হয়নি। আমরা আসলে নিশ্চিতভাবে বলতে পারি না যে, করোনার একটি ভ্যাকসিন আদৌ আসবে, সব ধরনের ট্রায়াল ও নিরাপত্তার মধ্যে দিয়ে সেটি পাচ্ছি কী না।

ইম্পেরিয়াল কলেজ লন্ডনের গ্লোবাল হেলথের এই অধ্যাপকের মতে, করোনার উন্নত চিকিৎসা হয়তো আসবে কিন্তু এটা সম্পূর্ণ রোধ করা যাবে না। প্রতি বছর বিশ্বজুড়ে এটির প্রাদুর্ভাব থেকে যাবে। এতে মৃত্যুও ঘটবে। ফলে লকডাউন জোরদার করা আবার শিথিল করা, এগুলো পর্যায়ক্রমে হওয়া উচিত।

তিনি আরও বলেন, এটি একেবারে অপরিহার্য যে, সব সোসাইটিকে সব দিক দিয়েই এমন একটি অবস্থানে নিয়ে যেতে হবে যেখানে করোনার ক্রমাগত হুমকি থেকে নিজেদের রক্ষা করতে সক্ষম হয়। সেইসঙ্গে সামাজিক জীবন এবং অর্থনৈতিক কার্যকলাপ চালিয়ে যেতে সম্ভব হয়।

তার মতে, একটি ভ্যাকসিন শুধু দুইটি স্ট্রেইনকে প্রতিরোধ করতে পারে। এই ভ্যাকসিন বাণিজ্যিকভাবে সহজলভ্য নাও হতে পারে। এর মধ্যে করোনার অনেকগুলো স্ট্রেইন পৃথিবীতে ছড়িয়ে পড়েছে, সবগুলোকে প্রতিরোধ করা হয়তো ভ্যাকসিনের পক্ষে সম্ভব হবে না।

এদিকে চলতি বছরের শেষেই নভেল করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন প্রস্তুত হয়ে যাবে বলে আশা ব্যক্ত করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে তার প্রতিক্রিয়ায় জার্মানির স্বাস্থ্যমন্ত্রী জেনস স্পান বলেন, করোনাভাইরাসের একটি ভ্যাকসিন প্রস্তুত করতে কয়েক বছর লেগে যেতে পারে। ফলে এত দ্রুত ভ্যাকসিন পাওয়া সম্ভব নাও হতে পারে।

Comments

comments