সাহারা খাতুনের মৃত্যুর শোক জানিয়ে গুজব ছড়ালেন শ্রমিক লীগ নেতা

শোক সংবাদ সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এডভোকেট সাহারা খাতুন এর মৃত্যুতে আমরা জাতীয় শ্রমিক লীগ আশুলিয়া থানা কমিটি গভীরভাবে শোকাহত। আমরা তার মাগফেরাত কামনা করছি, আল্লাহ যেন জান্নাতুল ফেরদৌস দান করেন, আমিন। সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর মৃত্যু নিয়ে এভাবে স্ট্যাটাস দিয়ে গুজব ছড়িয়েছেন শ্রমিক লীগ নেতা মেহেদী হাসান সুমন।

রবিবার (২১ জুন) রাত ১.০২ মিনিটে তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে সাহার খাতুনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত না হয়ে শোক জানান এই নেতা। এরপর ৯ মিনিট এর মাথায় এই স্ট্যাটাস আবার পরিবর্তন করে লেখেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, ঢাকা ১৮ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য সাহারা খাতুনের শারীরিক অবস্থার অবনতি। উনাকে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালের নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে (আই সি ইউ) ভর্তি করা হয়েছে। দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন, আমরা তার সুস্থতা কামনা করছি, আমিন।

কিন্তু তার আগেই স্ট্যাটাসটি ভাইরাল হয়ে যায়।

প্রথমে তার সমর্থকদের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে ক্ষোভ প্রকাশ করেন সাভারের আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা। অনেকেই আবার তার গ্রেফতারের দাবি জানান।

অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন তাহলে ‍গুজব ছড়ায় কে? সরকারি দলের একজন নেতার কছে এমনটা আশা করা লজ্জা জনক। এমন গুজব ও বিভ্রান্তিকর তথ্যে বিব্রতকর অবস্থায় পড়েছে সাংবাদিক সমাজ। তার বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ দীর্ঘদিনের।

ব্যানার ফেস্টুন দিয়ে এভাবেই বনে গেছেন নেতা

জানা যায়, বিভিন্ন সময় স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের তৈলবাজী করে বড় পদ হাতিয়ে নেন এই মেহেদী হাসান সুমন। এরপর থেকে বিভিন্ন সময় এলাকার শ্রমিকদের থেকে চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অপকর্ম করে আসছে এই নেতা।

এদিকে শনিবার (২০ জুন) আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনের শারীরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়েছে বলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন তার ভাগ্নে মজিবুর রহমান।

এর আগে জ্বর, অ্যালার্জিসহ বিভিন্ন বার্ধক্যজনিত রোগে অসুস্থ অবস্থায় ২ জুন সাহারা খাতুন ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি হন। তার অবস্থার উন্নতি হলে বেডে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু বৃহস্পতিবার (১৮ জুন) অবস্থার অবনতি হলে শুক্রবার সকালে তাকে আইসিইউতে নেওয়া হয়। পরে সাহারা খাতুনের করোনা টেস্টে নেগেটিভ আসে। ডাক্তারদের পক্ষ থেকে জানানো হয় বার্ধক্যজনিত কারণে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন তিনি।

Comments

comments