স্বর্ণের দামে ইতিহাসে সর্বোচ্চ রেকর্ড ভারতে

করোনাভাইরাস মহামারির কারণে অর্থনৈতিক সংকটের প্রেক্ষাপটে বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো ভারতেও লাফিয়ে বাড়ছে স্বর্ণের দাম। বুধবার তা রেকর্ড পর্যায়ে বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্সে খবর।

ভারতের পুঁজিবাজারে বুধবার দিনের শুরুতেই ২২ ক্যারেট মানের প্রতি ১০ গ্রাম (১ ভরির সামান্য কম) স্বর্ণের দাম পৌঁছায় ৪৯ হাজার ৯৯৬ রুপিতে (৬৭০.৩২ ডলার); বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৫৬ হাজার ৫০০ টাকা। স্বর্ণের এই দামের বৃদ্ধি ২০১৯ সালের দাম থেকে ২৮ শতাংশ বেশি।

ভারতে স্বর্ণের দামের বিষয়টি অবশ্য স্থানীয় খুচরা বাজারে চাহিদার ওপর অনেকটা নির্ভর করে। কেননা মূল্যবান এই ধাতুটি সর্বোচ্চ ব্যবহারের দিক থেকে ভারত বিশ্বে দ্বিতীয়।

বিশ্ববাজারেও বেড়েছে স্বর্ণের দাম। বুধবার প্রতি ১ আউন্স (২.৪৩০৫ ভরি) স্বর্ণের দাম ১.৩ শতাংশ বেড়ে দাঁড়ায় ১,৮৬৫.৮১ ডলার, যা প্রায় গত নয় বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ।

করোনাভাইরাস মহামারিতে ইউএস ডলারের মূল্য পতনে বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দামের এই উল্লম্ফন।

এদিকে ভারতে রুপার দামও বেড়েছে। দেশটির পুঁজি বাজারে বুধবার একপর্যায়ে প্রতি কেজির রুপার দাম ওঠে ৬০ হাজার ৭৮২ রুপি, যা সাত বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ।

আন্তর্জাতিক বাজারেও রুপার দাম ২০১৩ সালের পর সর্বোচ্চ পর্যায়ে ঠেকেছে। প্রতি আউন্স রুপার এর দাম উঠেছে ২২.৮৩৬৬ ডলার।

অর্থনৈতিক মন্দা বা রাজনৈতিক অস্থিরতায় ডলারের মান যখন দুর্বল হয়ে ওঠে, তখন স্বর্ণসহ নির্ধারিত বিভিন্ন ধাতুতে বিনিয়োগে নিরাপদ বোধ করেন বিনিয়োগকারীরা। ফলে এসব ধাতুর দাম বাড়ে। আর ডলার শক্ত অবস্থানে থাকলে স্বর্ণসহ মূল্যবান ধাতুগুলোর দাম কমে। কিন্তু ভারতে স্বর্ণ ব্যবহারের বৃদ্ধি পাওয়ার কারণেও দাম বেড়ে থাকে।

Comments

comments